দুর্নীতি দমনে অনবদ্য ভূমিকা, বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের নামে এবার দমদমে পুজো মঞ্চ উদ্বোধন

দুর্নীতি দমনে অনবদ্য ভূমিকা, বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের নামে এবার দমদমে পুজো মঞ্চ উদ্বোধন
দুর্নীতি দমনে অনবদ্য ভূমিকা, বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের নামে এবার দমদমে পুজো মঞ্চ উদ্বোধন

এসএসসি থেকে প্রাথমিক টেট, একের পর এক দুর্নীতি কাণ্ডে মামলা দায়ের করা হয়ে চলেছে কলকাতা হাইকোর্টে (Calcutta High Court)। সাম্প্রতিক সময়ে এই সকল মামলায় ঐতিহাসিক রায় এবং পদক্ষেপের মাধ্যমে প্রতিটি বঙ্গবাসীর মনে গুরুত্বপূর্ণ জায়গা করে নিয়েছেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় (Abhijit Ganguly)।

অনেক চাকরিপ্রার্থীদের কাছেই তিনি ‘ঈশ্বর’ আর এবার অভিজিৎবাবুর নামে তৈরি করা হলো দুর্গাপুজোর মঞ্চ, যা নিয়ে ইতিমধ্যে শোরগোল পড়ে গিয়েছে সর্বত্র। এসএসসি থেকে প্রাথমিক টেট, একের পর এক মামলার শুনানি চলাকালীন ঐতিহাসিক পদক্ষেপ নিতে দেখা গিয়েছে অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়কে।

একদিকে একের পর এক মামলায় সিবিআই এবং ইডিকে তদন্তের দায়ভার দেওয়ার পাশাপাশি মন্ত্রী কন্যা অঙ্কিতা অধিকারীকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করেন তিনি। আবার অপরদিকে শতাধিক যুবক-যুবতীকে চাকরির সুযোগ করে দেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়।

সম্প্রতি একটি মামলায় ক্যান্সার আক্রান্ত সোমা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চাকরিতে নিয়োগ করার নির্দেশ দেন তিনি। এরপরই মানুষের মনে এক বিশেষ জায়গা করে নেন অভিজিৎবাবু।

আর এবার পূজোর মঞ্চে জায়গা করে নিলেন তিনি দমদম গোরাবাজার সংঘমিত্রা ক্লাবের তরফ থেকে পুজো মণ্ডপের পাশাপাশি একটি মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে, যার নামকরণ হয়েছে অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের নামে। এই বিষয়টি সামনে আসতেই বর্তমানে শোরগোল পড়েছে সর্বত্র।

কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, “শিক্ষা হলো জাতির ভিত্তি। বর্তমানে তা ক্রমশ নষ্ট করে চলেছে প্রশাসন।

সেখানে বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় যেভাবে সাহসিকতার পরিচয় দেখিয়ে একের পর এক গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশ দিয়ে চলেছেন, তা এক কথায় অনবদ্য সেই কারণেই আমাদের পক্ষ থেকে তাঁকে সম্মান জানিয়ে মঞ্চের নামকরণ করা হয়েছে।”

উল্লেখ্য, সংঘমিত্রা ক্লাবের পুজো উদ্বোধন করেন ‘পদ্মশ্রী’ শিক্ষক সুজিত চট্টোপাধ্যায়, যিনি দু টাকার পরিবর্তে ছাত্রছাত্রীদের পড়ানোর জন্য বিখ্যাত। পুজো উদ্বোধনে এসে সুজিত চট্টোপাধ্যায় দুর্নীতি প্রসঙ্গে বলেন, “আমাদের সমাজের মেরুদন্ড হলো শিক্ষা। সেটাকে যদি কেউ ভেঙে দেওয়ার চেষ্টা করে, তবে তা অত্যন্ত দুঃখের। শিক্ষা নিয়ে যাতে পরবর্তী সময়ে আর কোন দুর্নীতি না হয়, কেউ কোনো রকম ব্যবসা করতে না পারে, বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের কাছে সেই বিষয়ে আমি আমার অনুরোধ জানাচ্ছি।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here